দেশে ইসলাম এসেছে শান্তির পথে : তথ্যমন্ত্রী

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:৩৬:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩
  • ১৬৭০ বার পড়া হয়েছে

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের দেশে ইসলাম এসেছে শান্তির পথে, ওলী-আউলিয়াদের হাত ধরে। কোনো যুদ্ধ-বিগ্রহের মাধ্যমে নয়। আমাদের দেশ সকল ধর্মের শান্তির দেশ।
তিনি বলেন, ওলী-আউলিয়ারা সে কারণে সম্মানের পাত্র। তাদের যারা সম্মান করে না, তারা বিএনপির দোসর। এরা গোলযোগ তৈরি করে, যা কখনো সমীচীন নয়।

মন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদীর সভাপতিত্বে সভায় ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, ইসলামি ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরীসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ইসলামের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা যা করেছেন, বঙ্গবন্ধুর পরে আর কোনো সরকার বা কেউ সেটি করেননি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশে এক লাখ মসজিদভিত্তিক মক্তব প্রতিষ্ঠা হয়েছে, যেখানে শিক্ষকরা মাসিক ৫ হাজার ২ শত টাকা করে ভাতা পান। শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে জেলা-উপজেলায় যেসব মসজিদ নির্মিত হয়েছে ও হচ্ছে, সেগুলোর দিকে তাকালে চোখ জুড়িয়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘এরশাদ এবং খালেদা জিয়া কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি দেয়ার কথা বলে ভোট টানলেও স্বীকৃতি দেননি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা করেছেন  এবং এ স্বীকৃতির পর তাদের অনেকের সরকারি চাকুরিও হয়েছে।’ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন তার বক্তৃতায় সততা ও দেশপ্রেমের মাধ্যমে দেশ গড়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।  ইফতারের আগে সভায় দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

দেশে ইসলাম এসেছে শান্তির পথে : তথ্যমন্ত্রী

আপডেট সময় : ১১:৩৬:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের দেশে ইসলাম এসেছে শান্তির পথে, ওলী-আউলিয়াদের হাত ধরে। কোনো যুদ্ধ-বিগ্রহের মাধ্যমে নয়। আমাদের দেশ সকল ধর্মের শান্তির দেশ।
তিনি বলেন, ওলী-আউলিয়ারা সে কারণে সম্মানের পাত্র। তাদের যারা সম্মান করে না, তারা বিএনপির দোসর। এরা গোলযোগ তৈরি করে, যা কখনো সমীচীন নয়।

মন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদীর সভাপতিত্বে সভায় ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, ইসলামি ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরীসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ইসলামের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা যা করেছেন, বঙ্গবন্ধুর পরে আর কোনো সরকার বা কেউ সেটি করেননি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারাদেশে এক লাখ মসজিদভিত্তিক মক্তব প্রতিষ্ঠা হয়েছে, যেখানে শিক্ষকরা মাসিক ৫ হাজার ২ শত টাকা করে ভাতা পান। শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে জেলা-উপজেলায় যেসব মসজিদ নির্মিত হয়েছে ও হচ্ছে, সেগুলোর দিকে তাকালে চোখ জুড়িয়ে যায়।

তিনি বলেন, ‘এরশাদ এবং খালেদা জিয়া কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি দেয়ার কথা বলে ভোট টানলেও স্বীকৃতি দেননি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা করেছেন  এবং এ স্বীকৃতির পর তাদের অনেকের সরকারি চাকুরিও হয়েছে।’ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন তার বক্তৃতায় সততা ও দেশপ্রেমের মাধ্যমে দেশ গড়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।  ইফতারের আগে সভায় দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।