নির্বাচনের আগে মা হলেন থাই প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:২৯:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • ১৬৬৪ বার পড়া হয়েছে

থাইল্যান্ডে নির্বাচনের মাত্র দুই সপ্তাহ আগে মা হয়েছেন হেভিওয়েট প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা। আজ সোমবার তিনি একটি ছেলে শিশুর জন্ম দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ১৪ মে থাইল্যান্ডে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে আজ ৩৬ বছর বয়সী পেতংতার্ন তার অফিসিয়াল ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম পেজে মা হওয়ার কথা জানালেন। এটি পেতংতার্নের দ্বিতীয় সন্তান। অন্তঃসত্ত্বা হওয়া সত্ত্বেও সামনে থেকেই এতদিন নির্বাচনী প্রচার দায়িত্ব সামলে এসেছেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামে পেতংতার্ন লেখেন, ‘সব ধরনের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ। মায়ের সুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর তিনি গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবেন।’

রয়টার্স বলছে, নির্বাচনী দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন পেতংতার্ন। থাই রাজনীতিতে সিনাওয়াত্রা পরিবারের ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে। এর আগের নির্বাচনে বিপুল ভোটে তাদের দল ক্ষমতায় এসেছে। বাবা থাকসিন সিনাওয়াত্রা ও ফুফু ইংলাকের পর পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা থাইল্যান্ডের ক্ষমতায় আসতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচনের আগে মা হলেন থাই প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী

আপডেট সময় : ০৮:২৯:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

থাইল্যান্ডে নির্বাচনের মাত্র দুই সপ্তাহ আগে মা হয়েছেন হেভিওয়েট প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা। আজ সোমবার তিনি একটি ছেলে শিশুর জন্ম দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ১৪ মে থাইল্যান্ডে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে আজ ৩৬ বছর বয়সী পেতংতার্ন তার অফিসিয়াল ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম পেজে মা হওয়ার কথা জানালেন। এটি পেতংতার্নের দ্বিতীয় সন্তান। অন্তঃসত্ত্বা হওয়া সত্ত্বেও সামনে থেকেই এতদিন নির্বাচনী প্রচার দায়িত্ব সামলে এসেছেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামে পেতংতার্ন লেখেন, ‘সব ধরনের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ। মায়ের সুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর তিনি গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবেন।’

রয়টার্স বলছে, নির্বাচনী দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন পেতংতার্ন। থাই রাজনীতিতে সিনাওয়াত্রা পরিবারের ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে। এর আগের নির্বাচনে বিপুল ভোটে তাদের দল ক্ষমতায় এসেছে। বাবা থাকসিন সিনাওয়াত্রা ও ফুফু ইংলাকের পর পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা থাইল্যান্ডের ক্ষমতায় আসতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।