বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের হামলায় দুই সেনা নিহত

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:১৩:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩
  • ১৬৬৬ বার পড়া হয়েছে

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মির (কেএনএ) গুলিবর্ষণ ও বিস্ফোরণে সেনাবাহিনীর দুজন সৈনিক নিহত এবং দুজন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।আজ বুধবার আইএসপিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রুমা উপজেলার সুংসুংপাড়া সেনা ক্যাম্পের আওতাধীন জারুলছড়িপাড়া নামক স্থানে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের আস্তানার খবর পাওয়া যায়। এরপর সুংসুংপাড়া আর্মি ক্যাম্প থেকে মেজর মনোয়ারের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট স্থানের উদ্দেশে রওনা দেয়। টহল দলটি জারুলছড়িপাড়ার পাশের পানিরছড়ার কাছাকাছি পৌঁছালে দুপুর ১টা ৩৫ মিনিটের দিকে কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ) সন্ত্রাসীদের ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বিস্ফোরণ ও অতর্কিত গুলিবর্ষণের মুখে পড়ে। এতে দুজন কর্মকর্তা ও দুজন সৈনিক আহত হন।

 

ঘটনার পরই আহতদের হেলিকপ্টারের মাধ্যমে চট্টগ্রাম সিএমএইচে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই সৈনিকের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া আহত কর্মকর্তারা বর্তমানে চট্টগ্রাম সিএমএইচে চিকিৎসাধীন।

আইএসপিআর বলছে, সাম্প্রতিক সময়ে কেএনএ বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলার গহিন অরণ্যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে অরাজক পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। দেশের জন্য আত্মোৎসর্গকারী শহীদ সেনা সদস্যদের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুতে সেনাবাহিনী প্রধান গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের হামলায় দুই সেনা নিহত

আপডেট সময় : ০৮:১৩:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ মে ২০২৩

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মির (কেএনএ) গুলিবর্ষণ ও বিস্ফোরণে সেনাবাহিনীর দুজন সৈনিক নিহত এবং দুজন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।আজ বুধবার আইএসপিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রুমা উপজেলার সুংসুংপাড়া সেনা ক্যাম্পের আওতাধীন জারুলছড়িপাড়া নামক স্থানে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের আস্তানার খবর পাওয়া যায়। এরপর সুংসুংপাড়া আর্মি ক্যাম্প থেকে মেজর মনোয়ারের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট স্থানের উদ্দেশে রওনা দেয়। টহল দলটি জারুলছড়িপাড়ার পাশের পানিরছড়ার কাছাকাছি পৌঁছালে দুপুর ১টা ৩৫ মিনিটের দিকে কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ) সন্ত্রাসীদের ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বিস্ফোরণ ও অতর্কিত গুলিবর্ষণের মুখে পড়ে। এতে দুজন কর্মকর্তা ও দুজন সৈনিক আহত হন।

 

ঘটনার পরই আহতদের হেলিকপ্টারের মাধ্যমে চট্টগ্রাম সিএমএইচে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই সৈনিকের মৃত্যু হয়। এ ছাড়া আহত কর্মকর্তারা বর্তমানে চট্টগ্রাম সিএমএইচে চিকিৎসাধীন।

আইএসপিআর বলছে, সাম্প্রতিক সময়ে কেএনএ বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলার গহিন অরণ্যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে অরাজক পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। দেশের জন্য আত্মোৎসর্গকারী শহীদ সেনা সদস্যদের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুতে সেনাবাহিনী প্রধান গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।