কেমাল নাকি এরদোয়ান, তুরস্কের ক্ষমতা যাচ্ছে কার হাতে ?

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:৩০:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ মে ২০২৩
  • ১৬৬৩ বার পড়া হয়েছে

আজ রোববার তুরস্কে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দ্বিতীয় দফার চলছে ভোট ।
স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে এই ভোট গ্রহণ।  আজ রাতেই জানা যাবে ভোটের ফলাফল।

তুরস্কের বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও বিরোধী নেতা কেমাল কিলিচদারওলু দ্বিতীয় দফার এই ভোটে মুখোমুখি হয়েছেন ।

১৪ মে তুরস্কে প্রথম দফার ভোট হলে নিয়ম অনুযায়ী কোনো প্রার্থীই সংখ্যা গরিষ্ঠ  ৫০ শতাংশ ভোট পাননি। তাই নির্বাচন গড়ায় দ্বিতীয় দফায়।

প্রথম দফার ভোটে এরদোয়ান পেয়েছিলেন ৪৯ দশমিক ৫২ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কেমাল পেয়েছিলেন ৪৪ দশমিক ৮৮ শতাংশ ভোট। প্রথম দফার ভোটে এরদোয়ান তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে প্রায় ৫ শতাংশ ভোট বেশি পেয়েছিলেন।

প্রথম দফার ভোটে ৫ দশমিক ১৭ শতাংশ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে ছিলেন কট্টর  জাতীয়তাবাদী পন্থী  সিনান ওগান। তবে দ্বিতীয় দফার ভোটে তিনি এরদোয়ানকে সমর্থন দিচ্ছেন।

কোন্ডার নামক জরিপকারী প্রতিষ্ঠানের জরিপে দেখা গেছে, দ্বিতীয় দফার ভোটে এরদোয়ানের পক্ষে ৫২ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটারের সমর্থন রয়েছে। কেমালের পক্ষে রয়েছে ৪৭ দশমিক ৩ শতাংশ সমর্থন।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, আজকের ভোটের মধ্য দিয়ে তুরস্কের শাসনভার আরেক মেয়াদের জন্য এরদোয়ান হাতে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন দ্বিতীয় দফার ভোটও প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ হবার সম্ভাবনা রয়েছে ।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কেমাল নাকি এরদোয়ান, তুরস্কের ক্ষমতা যাচ্ছে কার হাতে ?

আপডেট সময় : ০৪:৩০:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ মে ২০২৩

আজ রোববার তুরস্কে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দ্বিতীয় দফার চলছে ভোট ।
স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে এই ভোট গ্রহণ।  আজ রাতেই জানা যাবে ভোটের ফলাফল।

তুরস্কের বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও বিরোধী নেতা কেমাল কিলিচদারওলু দ্বিতীয় দফার এই ভোটে মুখোমুখি হয়েছেন ।

১৪ মে তুরস্কে প্রথম দফার ভোট হলে নিয়ম অনুযায়ী কোনো প্রার্থীই সংখ্যা গরিষ্ঠ  ৫০ শতাংশ ভোট পাননি। তাই নির্বাচন গড়ায় দ্বিতীয় দফায়।

প্রথম দফার ভোটে এরদোয়ান পেয়েছিলেন ৪৯ দশমিক ৫২ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কেমাল পেয়েছিলেন ৪৪ দশমিক ৮৮ শতাংশ ভোট। প্রথম দফার ভোটে এরদোয়ান তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে প্রায় ৫ শতাংশ ভোট বেশি পেয়েছিলেন।

প্রথম দফার ভোটে ৫ দশমিক ১৭ শতাংশ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে ছিলেন কট্টর  জাতীয়তাবাদী পন্থী  সিনান ওগান। তবে দ্বিতীয় দফার ভোটে তিনি এরদোয়ানকে সমর্থন দিচ্ছেন।

কোন্ডার নামক জরিপকারী প্রতিষ্ঠানের জরিপে দেখা গেছে, দ্বিতীয় দফার ভোটে এরদোয়ানের পক্ষে ৫২ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটারের সমর্থন রয়েছে। কেমালের পক্ষে রয়েছে ৪৭ দশমিক ৩ শতাংশ সমর্থন।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, আজকের ভোটের মধ্য দিয়ে তুরস্কের শাসনভার আরেক মেয়াদের জন্য এরদোয়ান হাতে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন দ্বিতীয় দফার ভোটও প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ হবার সম্ভাবনা রয়েছে ।