পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিত ‘র ট্রান্সফরমার চুরি রোধে ডিভাইস উদ্ভাবন

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:১৯:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩
  • ১৬৭৪ বার পড়া হয়েছে

বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধ ব্যবস্থায় ডিভাইস উদ্ভাবন করলো পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১। সমিতির লাইনম্যান মো. সাজেদুর রহমান এই ডিভাইসটি তৈরী করেছেন। ট্রান্সমিটার চুরি প্রতিরোধে এই ব্যবস্থা বেশ কার্যকর হওয়ার ডিভাইসটির জনপ্রিয়তা বাড়ছে।
পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ এর জেলারেল ম্যানেজার মো. আকমল হোসেন বলেন, জেলায় ৩৫ হাজার ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে বিদুৎ বিতরণ করা হয়। শতভাগ বিদ্যুতায়নের এ জেলায় বিদুৎ বিতরণ চ্যালেঞ্জ থাকলে ও ট্রান্সফরমার চুরি রোধ অন্যতম চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। গতবছর জেলায় ১৩৭টি ট্রান্সফরমার চুরি হয়, যার মুল্য কোটি টাকার অধিক। ট্রান্সফরমার বিদ্যুত বিতরণে ব্যাঘাত ঘটে যার ফলে খাদ্য উৎপাদনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধে কর্তৃপক্ষ যখন হিমশিম খাচ্ছে তখনই ট্রান্সমিটার চুরি প্রতিরোধে ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধক ডিভাইস তৈরী করছে পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি ১। কোন দুষ্কৃতিকারী ট্রান্সফরমার চুরির চেষ্টা করলে এই সিস্টেম (গ্লোবাল সিসটেম ফর মোবাইল কমিউনিকেশনÑজিএসএম) টির মাধ্যমে গ্রাহকের মোবাইল ফোনে কলের মাধ্যমে অবহিত করবে। এ ছাড়াও এই সিসটেম এলইডি বাল্ব জ¦লে উঠবে এবং এলার্ম বেজে উঠবে। ফলে আশেপাশের লোকজন বুঝতে পারবে যে ট্রান্সফরমার চুরির কেউ চেষ্টা করছে। এর ফলে চুরি প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। এই ডিভাইসটি তৈরী করেছেন পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতির লাইনম্যান মো. সাজেদুর রহমান। তাকে সহযোগীতা করেছেন জিএম, জিজিএম আইটি ও ডিজিএম ও এম। বর্তমানে এই প্রযুক্তিতে খরচ পড়ছে ৪ হাজার টাকার মতো। বেশী করে বানালে খরচ কমে আসবে। পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ বর্তমানে বেশকিছু ডিভাইস ব্যবহার করছে এবং উপকৃত হচ্ছে।
গত ৭ ও ৮ মে রাজশাহী বিভাগীয় উদ্ভাবনী মেলায় অংশগ্রহণ করে এই প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য রাজশাহী বিভাগের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১।

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিত ‘র ট্রান্সফরমার চুরি রোধে ডিভাইস উদ্ভাবন

আপডেট সময় : ০৮:১৯:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধ ব্যবস্থায় ডিভাইস উদ্ভাবন করলো পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১। সমিতির লাইনম্যান মো. সাজেদুর রহমান এই ডিভাইসটি তৈরী করেছেন। ট্রান্সমিটার চুরি প্রতিরোধে এই ব্যবস্থা বেশ কার্যকর হওয়ার ডিভাইসটির জনপ্রিয়তা বাড়ছে।
পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ এর জেলারেল ম্যানেজার মো. আকমল হোসেন বলেন, জেলায় ৩৫ হাজার ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে বিদুৎ বিতরণ করা হয়। শতভাগ বিদ্যুতায়নের এ জেলায় বিদুৎ বিতরণ চ্যালেঞ্জ থাকলে ও ট্রান্সফরমার চুরি রোধ অন্যতম চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। গতবছর জেলায় ১৩৭টি ট্রান্সফরমার চুরি হয়, যার মুল্য কোটি টাকার অধিক। ট্রান্সফরমার বিদ্যুত বিতরণে ব্যাঘাত ঘটে যার ফলে খাদ্য উৎপাদনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধে কর্তৃপক্ষ যখন হিমশিম খাচ্ছে তখনই ট্রান্সমিটার চুরি প্রতিরোধে ট্রান্সফরমার চুরি প্রতিরোধক ডিভাইস তৈরী করছে পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি ১। কোন দুষ্কৃতিকারী ট্রান্সফরমার চুরির চেষ্টা করলে এই সিস্টেম (গ্লোবাল সিসটেম ফর মোবাইল কমিউনিকেশনÑজিএসএম) টির মাধ্যমে গ্রাহকের মোবাইল ফোনে কলের মাধ্যমে অবহিত করবে। এ ছাড়াও এই সিসটেম এলইডি বাল্ব জ¦লে উঠবে এবং এলার্ম বেজে উঠবে। ফলে আশেপাশের লোকজন বুঝতে পারবে যে ট্রান্সফরমার চুরির কেউ চেষ্টা করছে। এর ফলে চুরি প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। এই ডিভাইসটি তৈরী করেছেন পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতির লাইনম্যান মো. সাজেদুর রহমান। তাকে সহযোগীতা করেছেন জিএম, জিজিএম আইটি ও ডিজিএম ও এম। বর্তমানে এই প্রযুক্তিতে খরচ পড়ছে ৪ হাজার টাকার মতো। বেশী করে বানালে খরচ কমে আসবে। পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ বর্তমানে বেশকিছু ডিভাইস ব্যবহার করছে এবং উপকৃত হচ্ছে।
গত ৭ ও ৮ মে রাজশাহী বিভাগীয় উদ্ভাবনী মেলায় অংশগ্রহণ করে এই প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য রাজশাহী বিভাগের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে পাবনা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১।