মেক্সিকোয় গিরিখাত থেকে মানুষের দেহ সম্বলিত ৪৫ ব্যাগ উদ্ধার

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০২:৫৩:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩
  • ১৬৭৪ বার পড়া হয়েছে

মেক্সিকান পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর গুয়াদালাজারার বাইরে একটি গিরিখাতে অন্ধকারাচ্ছন্ন দুর্গম জায়গায় মানুষের দেহাবশেষ সম্বলিত ৪৫টি ব্যাগ খুঁজে পেয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। গত সপ্তাহে সাতজন তরুণ কল সেন্টার কর্মী এই এলাকায় এসে আর ফেরত না গেলে অনুসন্ধান শুরু হয়।

উদ্ধারকৃত দেহাবশেষের মধ্যে পুরুষ ও নারী উভয়েরই মৃতদেহের অংশ রয়েছে কিন্তু সেখানে ঠিক কতজনের মৃতদেহের অংশ আছে তা নিশ্চিত নয়। তাই অনুসন্ধান আরও কিছু দিন চলবে। মেক্সিকোর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ জলিসকোর রাষ্ট্রীয় প্রসিকিউটরের কার্যালয় নিখোঁজ সাত জনের ব্যাপারে একটি সূত্র পাওয়ার পর মিরাডোর দেল বস্ক গিরিখাতে যায় এবং একসময় মানবদেহের অঙ্গসহ এসব ব্যাগ আবিষ্কার করে।

মেক্সিকোতে গুম করা একটি সাধারণ বিষয়। সরকারি পরিসংখ্যান মতে, উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোতে ১ লাখেরও বেশি মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ হওয়া সাতজন তরুণ কল সেন্টার কর্মীর খোঁজ চলছে। ব্যাগে থাকা বাকি মানুষগুলো মোট কতজন, তারা কারা, কেন তাদের এভাবে ব্যাগবন্দী করা হল বা কারা এটা করছে সেটাও বের করা হবে।

২০০৭ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ফেলিপ ক্যালডেরন মেক্সিকোতে ‘মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ’ শুরুর ঘোষণা দিলে দেশটিতে ১৮ বছরের কম অনেক নারী-পুরুষ নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজদের স্বজনরা অভিযোগ দেন সরকার নিখোঁজদের খুঁজতে সন্তোষজনক কাজ করছে না বরং তারা প্রিয়জনের নিখোঁজ অভিযোগ জানাতে গেলে কর্মকর্তারা উদাসীন থাকেন। উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোর এই অবস্থাকে জাতিসংঘ ‘বিশাল অনুপাতের মানবিক ট্র্যাজেডি’ বলে অভিহিত করেছে।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মেক্সিকোয় গিরিখাত থেকে মানুষের দেহ সম্বলিত ৪৫ ব্যাগ উদ্ধার

আপডেট সময় : ০২:৫৩:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩

মেক্সিকান পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর গুয়াদালাজারার বাইরে একটি গিরিখাতে অন্ধকারাচ্ছন্ন দুর্গম জায়গায় মানুষের দেহাবশেষ সম্বলিত ৪৫টি ব্যাগ খুঁজে পেয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। গত সপ্তাহে সাতজন তরুণ কল সেন্টার কর্মী এই এলাকায় এসে আর ফেরত না গেলে অনুসন্ধান শুরু হয়।

উদ্ধারকৃত দেহাবশেষের মধ্যে পুরুষ ও নারী উভয়েরই মৃতদেহের অংশ রয়েছে কিন্তু সেখানে ঠিক কতজনের মৃতদেহের অংশ আছে তা নিশ্চিত নয়। তাই অনুসন্ধান আরও কিছু দিন চলবে। মেক্সিকোর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ জলিসকোর রাষ্ট্রীয় প্রসিকিউটরের কার্যালয় নিখোঁজ সাত জনের ব্যাপারে একটি সূত্র পাওয়ার পর মিরাডোর দেল বস্ক গিরিখাতে যায় এবং একসময় মানবদেহের অঙ্গসহ এসব ব্যাগ আবিষ্কার করে।

মেক্সিকোতে গুম করা একটি সাধারণ বিষয়। সরকারি পরিসংখ্যান মতে, উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোতে ১ লাখেরও বেশি মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ হওয়া সাতজন তরুণ কল সেন্টার কর্মীর খোঁজ চলছে। ব্যাগে থাকা বাকি মানুষগুলো মোট কতজন, তারা কারা, কেন তাদের এভাবে ব্যাগবন্দী করা হল বা কারা এটা করছে সেটাও বের করা হবে।

২০০৭ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ফেলিপ ক্যালডেরন মেক্সিকোতে ‘মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ’ শুরুর ঘোষণা দিলে দেশটিতে ১৮ বছরের কম অনেক নারী-পুরুষ নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজদের স্বজনরা অভিযোগ দেন সরকার নিখোঁজদের খুঁজতে সন্তোষজনক কাজ করছে না বরং তারা প্রিয়জনের নিখোঁজ অভিযোগ জানাতে গেলে কর্মকর্তারা উদাসীন থাকেন। উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোর এই অবস্থাকে জাতিসংঘ ‘বিশাল অনুপাতের মানবিক ট্র্যাজেডি’ বলে অভিহিত করেছে।