নোয়াখালীতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মা ও মেয়ে খুন

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:৪৭:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ জুন ২০২৩
  • ১৬৬৪ বার পড়া হয়েছে

আজ বুধবার বেলা পৌনে ১১টায় নোয়াখালী পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের গুপ্তাংকের বার্লিংটন মোড় এলাকার ফজলে আজিম ওরফে কচির স্ত্রী নুর নাহার বেগম (৪০) ও এসএসসি পরীক্ষার্থী মেয়ে ফাতেমা আজিম প্রিয়ন্তীকে (১৬) এক দুর্বৃত্ত ওই বাড়ির দোতলায় ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে।

তাদের মধ্যে মা ঘটনাস্থলে এবং মেয়ে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। আজ সকাল ৯টার দিকে ফজলে আজিম বাসা থেকে বের হয়ে কর্মস্থল বেসরকারি হাসপাতালে যান। নিচ তলার একটি অংশ ভাড়া দেওয়ার জন্য ‘টু-লেট’ সাইনবোর্ড টাঙানো হলে গতকাল এক ভাড়াটিয়া বাসা দেখতে আসলে তাকে আজ আসতে বলেছিলেন। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জানতে পারেন, তাঁর বাসায় ডাকাত ঢুকেছে। তাৎক্ষণিক তিনি বাসায় এসে স্ত্রীর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

 

 

ফজলে আজিমের বাসার একজন ভাড়াটিয়া বলেন, সকালে দুই তলা থেকে চিৎকার করতে করতে ফাতেমা রক্তাক্ত অবস্থায় দরজার সামনে আসে। পরে দরজা খুলে দিলে সে মেঝেতে পড়ে গেলে ওই অবস্থায় তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে পলায়নরত অবস্থায় রক্তমাখা অবস্থায় একজনকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে সোপর্দ করে।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নোয়াখালীতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মা ও মেয়ে খুন

আপডেট সময় : ১০:৪৭:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ জুন ২০২৩

আজ বুধবার বেলা পৌনে ১১টায় নোয়াখালী পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের গুপ্তাংকের বার্লিংটন মোড় এলাকার ফজলে আজিম ওরফে কচির স্ত্রী নুর নাহার বেগম (৪০) ও এসএসসি পরীক্ষার্থী মেয়ে ফাতেমা আজিম প্রিয়ন্তীকে (১৬) এক দুর্বৃত্ত ওই বাড়ির দোতলায় ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে।

তাদের মধ্যে মা ঘটনাস্থলে এবং মেয়ে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। আজ সকাল ৯টার দিকে ফজলে আজিম বাসা থেকে বের হয়ে কর্মস্থল বেসরকারি হাসপাতালে যান। নিচ তলার একটি অংশ ভাড়া দেওয়ার জন্য ‘টু-লেট’ সাইনবোর্ড টাঙানো হলে গতকাল এক ভাড়াটিয়া বাসা দেখতে আসলে তাকে আজ আসতে বলেছিলেন। এরপর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জানতে পারেন, তাঁর বাসায় ডাকাত ঢুকেছে। তাৎক্ষণিক তিনি বাসায় এসে স্ত্রীর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

 

 

ফজলে আজিমের বাসার একজন ভাড়াটিয়া বলেন, সকালে দুই তলা থেকে চিৎকার করতে করতে ফাতেমা রক্তাক্ত অবস্থায় দরজার সামনে আসে। পরে দরজা খুলে দিলে সে মেঝেতে পড়ে গেলে ওই অবস্থায় তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে পলায়নরত অবস্থায় রক্তমাখা অবস্থায় একজনকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে সোপর্দ করে।