বিপুল পরিমান ইয়াবা সহ গ্রেফতার ৫

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৯:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩
  • ১৬৬৫ বার পড়া হয়েছে

৮ হাজার ৮১২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার হয়েছেন কক্সবাজারের কলাতলীতে মেরিন ইকো রিসোর্টের মালিক ও চক্রের মূলহোতা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী কাজী জাফর সাদেক ওরফে রাজু (৩৮), আরাফাত আবেদীন (৩৮), তাহরিম ইসলাম রবিন (৪৩), আহম্মেদ সাবাব (২৬) এবং সাদি রহমান (২৬)।

ডিএনসি দক্ষিণের উপ-পরিচালক মো. মাসুদ হোসেন বলেন,  মঙ্গলবার ভোর থেকে গতকাল বুধবার পর্যন্ত টানা অভিযান চালিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে   ইয়াবাসহ বনানী থেকে গ্রেপ্তার হয় আহম্মেদ সাবাব ও সাদি রহমান নামে দুই ব্যাক্তিকে । তাহরিম ইসলাম রবিনকে গুলশান থেকে ২০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানা যায় চাঞ্চল্যকর তথ্য।

কক্সবাজারের কলাতলীতে মেরিন ইকো রিসোর্টের মালিক নিজে এবং তার সহযোগীদের মাধ্যমে কক্সবাজার ভিত্তিক একটি মাদক সিন্ডিকেট তৈরি করে দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজার থেকে প্লেনে ইয়াবা ঢাকায় এনে এজেন্টদের মধ্যে সরবরাহ করতেন। রাজু একজন পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী এবং তার বিরুদ্ধে কক্সবাজার থানায় দুটি মামলা রয়েছে। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরাফাত আবেদীন নামের এক ব্যক্তিকে দুই হাজার ৫০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়। আরাফাতের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রামপুরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় রিসোর্ট মালিক কাজী জাফর সাদেক। তার কাছে পাওয়া যায় ৬ হাজার পিস ইয়াবা। গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে বনানী, গুলশান, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট ও রামপুরা থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বিপুল পরিমান ইয়াবা সহ গ্রেফতার ৫

আপডেট সময় : ০৬:৪৯:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩

৮ হাজার ৮১২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার হয়েছেন কক্সবাজারের কলাতলীতে মেরিন ইকো রিসোর্টের মালিক ও চক্রের মূলহোতা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী কাজী জাফর সাদেক ওরফে রাজু (৩৮), আরাফাত আবেদীন (৩৮), তাহরিম ইসলাম রবিন (৪৩), আহম্মেদ সাবাব (২৬) এবং সাদি রহমান (২৬)।

ডিএনসি দক্ষিণের উপ-পরিচালক মো. মাসুদ হোসেন বলেন,  মঙ্গলবার ভোর থেকে গতকাল বুধবার পর্যন্ত টানা অভিযান চালিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে   ইয়াবাসহ বনানী থেকে গ্রেপ্তার হয় আহম্মেদ সাবাব ও সাদি রহমান নামে দুই ব্যাক্তিকে । তাহরিম ইসলাম রবিনকে গুলশান থেকে ২০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানা যায় চাঞ্চল্যকর তথ্য।

কক্সবাজারের কলাতলীতে মেরিন ইকো রিসোর্টের মালিক নিজে এবং তার সহযোগীদের মাধ্যমে কক্সবাজার ভিত্তিক একটি মাদক সিন্ডিকেট তৈরি করে দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজার থেকে প্লেনে ইয়াবা ঢাকায় এনে এজেন্টদের মধ্যে সরবরাহ করতেন। রাজু একজন পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী এবং তার বিরুদ্ধে কক্সবাজার থানায় দুটি মামলা রয়েছে। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরাফাত আবেদীন নামের এক ব্যক্তিকে দুই হাজার ৫০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়। আরাফাতের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রামপুরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় রিসোর্ট মালিক কাজী জাফর সাদেক। তার কাছে পাওয়া যায় ৬ হাজার পিস ইয়াবা। গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে বনানী, গুলশান, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট ও রামপুরা থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।