বিএনপি পুলিশ সংঘর্ষে ৪ মামলা

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:২১:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩
  • ১৬৭২ বার পড়া হয়েছে

লক্ষ্মীপুরে পদযাত্রা কর্মসূচিকে কেন্দ্রকরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে চারটি মামলা হয়েছে।

পুলিশের কাজে বাধা ও পুলিশকে আহত করার অভিযোগে দুইটি মামলা দায়ের করেন পুলিশ। অপর দুইজন বাদী হয়ে আরও দুইটি মামলা করেন।বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীকে প্রধান আসামি করে ৫৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩ হাজার ৫০০ জনকে আসামী করা হয়।

বুধবার (১৯জুলাই) রাতে সদর থানা পুলিশের এসআই আনিছুর রহমান বাদি হয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন। লক্ষ্মীপুরে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিকে ঘিরে গত মঙ্গলবার (১৮জুলাই) পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষে মো. সজীব হোসেন (৩০) নামের কৃষক দলের একজন কর্মী নিহত হন। এই হত্যার ঘটনায় নিহত সজীবের ভাই মো. সুজন হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা একাধিক আসামিদের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সোহেল রানা বলেন, পুলিশের ওপর হামলা, সংঘর্ষ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চারটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে দুই মামলারই বাদী পুলিশ। মামলার আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বিএনপি পুলিশ সংঘর্ষে ৪ মামলা

আপডেট সময় : ০৬:২১:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩

লক্ষ্মীপুরে পদযাত্রা কর্মসূচিকে কেন্দ্রকরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে চারটি মামলা হয়েছে।

পুলিশের কাজে বাধা ও পুলিশকে আহত করার অভিযোগে দুইটি মামলা দায়ের করেন পুলিশ। অপর দুইজন বাদী হয়ে আরও দুইটি মামলা করেন।বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীকে প্রধান আসামি করে ৫৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩ হাজার ৫০০ জনকে আসামী করা হয়।

বুধবার (১৯জুলাই) রাতে সদর থানা পুলিশের এসআই আনিছুর রহমান বাদি হয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন। লক্ষ্মীপুরে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিকে ঘিরে গত মঙ্গলবার (১৮জুলাই) পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষে মো. সজীব হোসেন (৩০) নামের কৃষক দলের একজন কর্মী নিহত হন। এই হত্যার ঘটনায় নিহত সজীবের ভাই মো. সুজন হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা একাধিক আসামিদের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করেন।

অন্যদিকে লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সোহেল রানা বলেন, পুলিশের ওপর হামলা, সংঘর্ষ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চারটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে দুই মামলারই বাদী পুলিশ। মামলার আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।