দূর্বৃত্তদের কবলে যুবলীগ কর্মী-কুপিয়ে হত্যা

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:১৩:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০২৩
  • ১৬৫৯ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীর শাহজাহানপুরের গুলবাগ এলাকায় এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত যুবকের নাম অলিউল্লাহ রুবেল(৩৬)। জানা গেছে, তিনি যুবলীগ কর্মী ছিলেন। অলিউল্লাহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ১২ নম্বর ওয়ার্ডে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার ২০জুলাই দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শাহজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফারুকুল আলম বলেন, অলিউল্লাহকে কারা কুপিয়ে হত্যা করেছে সেটি তদন্ত করা হচ্ছে।

অলিউল্লাহর ভগ্নিপতি মামুন আহমেদের কাছ থেকে জানা যায়, অলিউল্লাহ একজন ব্যবসায়ী। তিনি শাহজাহানপুর এলাকায় ইন্টারনেটের সংযোগ দেওয়ার কাজ করতেন। একসময় শাহজাহানপুর থানা ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক ছিলেন। সর্বশেষ তিনি যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাঁর স্ত্রী তানজিনা দেওয়ান মহিলা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তিনি বলেন, নিহত অলিউল্লাহ রাতে রাজারবাগ এলাকা থেকে জোয়ারদার লেনে বাসায় ফিরছিলেন। বাসার পাশেই তাকে কেউ ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রেখে যায়। এতে গুরুতর আহত হয় অলিউল্লাহ। নিহতের চিৎকারে এলকার ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
শাহজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. ফারুকুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, কারা এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা তদন্ত করা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

দূর্বৃত্তদের কবলে যুবলীগ কর্মী-কুপিয়ে হত্যা

আপডেট সময় : ০১:১৩:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০২৩

রাজধানীর শাহজাহানপুরের গুলবাগ এলাকায় এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত যুবকের নাম অলিউল্লাহ রুবেল(৩৬)। জানা গেছে, তিনি যুবলীগ কর্মী ছিলেন। অলিউল্লাহ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ১২ নম্বর ওয়ার্ডে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার ২০জুলাই দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শাহজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফারুকুল আলম বলেন, অলিউল্লাহকে কারা কুপিয়ে হত্যা করেছে সেটি তদন্ত করা হচ্ছে।

অলিউল্লাহর ভগ্নিপতি মামুন আহমেদের কাছ থেকে জানা যায়, অলিউল্লাহ একজন ব্যবসায়ী। তিনি শাহজাহানপুর এলাকায় ইন্টারনেটের সংযোগ দেওয়ার কাজ করতেন। একসময় শাহজাহানপুর থানা ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক ছিলেন। সর্বশেষ তিনি যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাঁর স্ত্রী তানজিনা দেওয়ান মহিলা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তিনি বলেন, নিহত অলিউল্লাহ রাতে রাজারবাগ এলাকা থেকে জোয়ারদার লেনে বাসায় ফিরছিলেন। বাসার পাশেই তাকে কেউ ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রেখে যায়। এতে গুরুতর আহত হয় অলিউল্লাহ। নিহতের চিৎকারে এলকার ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
শাহজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. ফারুকুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, কারা এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা তদন্ত করা হচ্ছে।